Logo

বাদামের অসাধারণ পুষ্টিগুন!

অনলাইন ডেক্স;
প্রকাশ: শনিবার, ৩ জুলাই, ২০২১

বাদাম বেশ পুষ্টিকর একটি খাবার।বাদামে রয়েছে উচ্চ মাত্রায় প্রােটিন এবং ফাইবার । এছাড়াও বাদামে আছে উপকারী ফ্যাট , ভিটামিন ই , বি ২ , ম্যাগনেসিয়া , ক্যালসিয়াম , ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড ইত্যাদি ।

  • প্রতিদিন ৩০ গ্রাম অর্থাৎ ১ মুঠো বাদাম স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী ।
  • বাদাম আমাদের কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে ।
  • বাদামে উচ্চমাত্রায় ফাইবার থাকায় এটি হজম শক্তিকে বাড়াতে বেশ কার্যকর ।

বাদামের উচ্চ ম্যাগনেসিয়াম এবং কমমাত্রায় সােডিয়াম থাকার কারনে আমাদের উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে।তবে বাদামের সাথে লবন খেলে সেটা উচ্চ রক্তচাপ বাড়িয়ে দেবার ঝুঁকি রয়েছে।

ডায়াবেটিসের জন্যও বাদাম উপকারী । যারা নিয়মিত নির্দিষ্ট পরিমানে বাদাম খেয়ে থাকেন তাদের টাইপ টু ডায়াবেটিক হবার সম্ভাববা ২৫-৩৮% কম থাকে।

  • এতে মনাে স্যাচুরেটেড ফ্যাটের পরিমান কম থাকায় হার্ট এটাকের ঝুঁকি হ্রাস করে ।
  • এর অন্টি অক্সিডেন্ট ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাধা দিয়ে ক্যান্সার রােগ প্রতিরােধে সহায়তা করে ।
  • উচ্চমাত্রায় প্রােটিন থাকায় হজম শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে
  • বাদামের ভিটামিন বি আমাদের স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে এবং বিষন্নতা দূর করতেও সাহায্য করে থাকে ।
  • বাদামের ভিটামিন ই ত্বকের জন্য বেশ উপকারী ।

তবে অতিরিক্ত বাদাম গ্রহন শরীরের জন্য ক্ষতিকর প্রভাব নিয়ে আসতে পারে । মাত্রাতিরিক্ত বাদাম গ্রহন করার ফলে ওজন বেড়ে যেতে পারে , গ্যাস্টিকের সমস্যা হতে পারে , এলার্জি হতে পারে এমনকি কিছু কিছু ওষুধের কার্যক্রমও কমে যেতে পারে ।

যাদের কিডনিতে পাথর বা পিত্ততে পাথর রয়েছে তাদের এই ধরনের ড্রাই ফুড এড়িয়ে চলাই ভালাে । কারন এতে অক্সিজেনের মাত্রা বেশি থাকে যা পাথরকে বাড়াতে সাহায্য করে ।

গর্ভবতী মায়েদের জন্য বাদাম বেশ উপকারী । অনাগত সন্তানের সুস্থতার জন্য বাদাম বেশ পুষ্টিকর খাবার । যদি থাইয়ডের সমস্যা না থাকে তবে প্রতিদিন ৪-৬ টি কাঠবাদাম গর্ভবতী মা গ্রহন করতে পারেন।এটি বাচ্চার ব্রেইন ডেভেলপমেন্টের ক্ষেত্রে কার্যকর ভুমিকা পালন করে থাকে । এসময় যাদের দুধ খেতে অনীহা চলে আসে তারা দুধের সাথে বাদাম মিশিয়েও খেতে পারেন ।

বাচ্চাদের ক্ষেত্রে সুজি , সাগু কিংবা ওটসের সাথে ১-২ গ্রাম বাদাম গুড়া করে দেয়া যেতে পারে।সেক্ষেত্রে খেয়াল করতে হবে যেন বাচ্চার এলার্জির সমস্যা না হয় । ৬ মাস থেকে ১ বছর পর্যন্ত বাচ্চাদের বাদাম গুড়া করে দেয়াই ভালাে।

 

তরুণকন্ঠ/এইচএস 


More News Of This Category
Theme Created By Tarunkantho.Com