Logo

সৌদি সেনাবাহিনীর অধীনে যোগ হলো “নারী সেনা দল”

অনলাইন ডেক্স;
প্রকাশ: শনিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১
সৌদি নারী সেনা সদস্য

অবশেষে সকল জল্পনা কল্পনা শেষে দায়িত্বে আসছে সৌদি নারী সেনা সদস্য। ফলে সৌদি আরবের ইতিহাসে প্রথম বারের মত সেনাবাহিনীতে যোগ দিচ্ছে নারী সদস্য গন।

এখন থেকে প্রথমবারের মতো কর্মক্ষেত্রে যোগ দিতে প্রস্তুত দেশটির নারী সেনা সদস্যরা। পুরুষদের পাশাপাশি এখন থেকে তাদেরকেও দেখা যাবে সৌদি সেনাবাহিনীতে।

মুসলিমের জাতিসংঘ হিসাবে খ্যাত, বিশ্বের সবচেয়ে পবিত্রতম স্থান পবিত্র কাবাঘর।মক্কা নগরীতে অবস্থিত পবিত্রতম এই স্থানটির জন্য পরিপুর্ন ইসলামি আইনে পরিচালিত হয় সৌদি আরব। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার আগে সৌদি আরবে নারীদের অবাধে চলাফেরা নিষিদ্ধ ছিলো। কিন্তু বর্তমানে নারীদের সমঅধিকার দেওয়া হয়েছে। ফলে তারা ঢ্রাইভিং থেকে শুরু করে খেলাধুলা, সিনেমা প্রদর্শন, শপিং মল সহ বিভিন্ন পার্টিতে নারীদের অবাধে বিচরনের স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে।

সৌদি নারীসেনা হিসাবে সেনাবাহিনীতে যোগ দেওয়ার জন্য ১৪ সপ্তাহের প্রশিক্ষণ ক্যাম্প শুরু হয়েছিল গত ৩০ মে। দেশটির আর্মড ফোর্সেস ওমেন’স ক্যাডার ট্রেনিং সেন্টারের অধীনে এই প্রশিক্ষণে অংশ নিয়েছিলেন নারী ক্যাডেটদের প্রথম ব্যাচ।এরপর পর্যায়ক্রমে ব্যাচ করে প্রশিক্ষনের মাধ্যমে নারীদের সেনাবাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন সেদেশের সেনা অধিদপ্তর।

বুধবার এই প্রশিক্ষণ পর্ব সম্পন্ন করে তারা।

প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি অনুষ্ঠানে মেজর জেনারেল আদেল আল-বালাবি বলেন, এই প্রোগ্রামের মূল উদ্দেশ্য প্রশিক্ষণ কর্মসূচি, পাঠ্যক্রম এবং একটি আদর্শ শিক্ষার পরিবেশ প্রদান করা। আন্তর্জাতিক মানের এই প্রশিক্ষণে নারীদের সেনা সদস্যে রূপান্তরিত করার সব উপাদানই রয়েছে। এর ফলে কেন্দ্রের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে এই উদ্যোগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

নারীদের সেনাবাহিনীতে অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে সৌদি আরবের ইতিহাসে প্রথম নারী দল হিসাবে খাকি কাপড়ের পোশাকে দেখা গেলো নারীসেনাদের।

পরিপূর্ণ ইসলাম পন্থী একটি দেশ হিসাবে নারীদের অবাধে বিচরন বা সমঅধিকার দেওয়া নিয়ে দেশটির ভবিষ্যত রাজনীতিতে কি প্রভাব ফেলবে তা সময়ই বলে দিবে।


More News Of This Category
Theme Created By Tarunkantho.Com