Logo

জাবি ছাত্রকে নির্যাতন :ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ

মো: আরিফুর রহমান অরি,রিপোর্টার:
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে ঘুরতে গিয়ে অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করায় আনসার সদস্যদের দ্বারা বেধড়ক মারধরের শিকার হয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) প্রাণীবিদ্যা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র নুর হোসাইন।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) পৌনে ১২টার দিকে মহাসড়ক অবরোধ করেন তারা। এ সময় সড়কের উভয়পাশে গাড়ি আটকে গিয়ে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। পরে প্রশাসনের আশ্বাসে সোয়া ১২টার দিকে অবরোধ তুলে নেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক সংলগ্ন সড়কে মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা চার দফা দাবি উত্থাপন করেন।

দাবিগুলো হলো- আহতের চিকিৎসা ব্যয় বহন করা, দোষীদের স্থায়ী বহিষ্কার এবং গ্রেফতার করা, স্মৃতিসৌধে চলমান অনৈতিক কাজ বন্ধ করা।

নুর হোসাইন বলেন, আমি বিকেলে স্মৃতিসৌধে ঘুরতে যাই। সেখানে অর্থের বিনিময়ে ডিউটিরত আনসার সদস্যরা কাউকে কাউকে প্রবেশ করতে দিচ্ছে এমন দৃশ্য দেখে আমি এর প্রতিবাদ করলে তারা আমাকে একটা রুমে নিয়ে আবদ্ধ করে। পরে সাত-আট জন আনসার সদস্য মিলে আমার ঠোঁট, গলা ও তলপেটে আঘাত করে। এমনকি আমার মাথাতেও আঘাত করে।

সাভার হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ করিম খান জানান, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের কারণে সড়কের দুই পাশে যানচলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশ সদস্যরা তাদের বুঝিয়ে সড়িয়ে দিলে ১৫ মিনিট পর সড়ক স্বাভাবিক হয়।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘গতকাল আমাদের নূর হোসেন নামে এক ছাত্র তার দুই ভাগনেকে নিয়ে স্মৃতিসৌধে বেড়াতে যান। এ সময় ফটকের দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তাকর্মীরা তাকে ঢুকতে দেয়নি। ওই সময় অনেককেই অনৈতিক সুবিধা নিয়ে ভেতরে ঢুকতে দেয়া হয়, যা নজরে আসে আমাদের ওই শিক্ষার্থীর।

তখন প্রতিবাদ করে মোবাইলে ভিডিও ধারণের চেষ্টা করেন নূর। এ সময় চার আনসার সদস্য তাকে মারধর করে গুরুতর আহত করে। পরে তাকে সাভারের এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তিনি জানান, এ ঘটনার প্রতিবাদে সড়কে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। পুলিশ গিয়ে আনসার সদস্যদের বিচারের আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা সরে যান।

ওসি সাজ্জাদ জানান, শিক্ষার্থীদের আশুলিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ করতে বলা হয়েছে।

গণপূর্ত বিভাগের জাতীয় স্মৃতিসৌধের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মিজানুর রহমান জানান, সোমবার রাতেই ওই চার আনসার সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। আহত শিক্ষার্থীর চিকিৎসার খরচ দেয়া হবে।


More News Of This Category
Theme Created By Tarunkantho.Com