Logo

মরিশাসের প্রতিনিধি ঢাকার “বিশ্ব শান্তি সম্মেলনে” যোগদান

আঃ আলীম, ষ্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: শুক্রবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২১
বিশ্ব শান্তি সম্মেলনে

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের “বিশ্ব শান্তি” প্রতিষ্ঠার অবদানের আন্তর্জাতিকীকরণের লক্ষ্য নিয়ে গত শনিবার (০৪ ডিসেম্বর) বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় অনুষ্ঠিত হলো ” বিশ্ব শান্তি সম্মেলন। “World peace conference @ Dhaka”।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে রাজধানীর তিনটি ভেন্যুতে এ সম্মেলন হয়েছে। এতে সরাসরি ও ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্ম মিলিয়ে যোগ দিয়েছেন মরিশাস
সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অন্তত ৯০ জন অতিথি।

মরিশাসের প্রতিনিধি হিসাবে উক্ত সন্মেলনে যোগ দিয়েছেন, মরিসাস্থ আন্তর্জাতিক ইসলামী দাতা সংগঠন “আল ইহসান ইসলামী দাতা সংস্থার” অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান,ও আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন মানবিক সংগঠক মিঃ আলী জুকান।

মিঃ আলী জুকান উক্ত সম্মেলনে “বিশ্ব প্রতিবন্ধী অধিকার এবং সচেতনতা প্রচারক” হিসাবে ৩-৬ ডিসেম্বর ঢাকায় বিশ্ব শান্তি সম্মেলন ২০২১-এ যোগ দিয়েছেন। তিনি ‘টেকসই উন্নয়ন এবং সামাজিক কল্যাণের মাধ্যমে শান্তি’ নিয়ে আলোচনা করা প্যানেলিস্টদের মধ্যে অন্যতম একজন।’

বিশ্ব মানবতার ফেরিওয়ালা মিঃ জুকান, দীর্ঘ ২৪ বছর ধরে বিশ্বের অসহায় মানুষদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন নিরলসভাবে। তিনি মরিশাস সরকার হতে O.S.K পদক এবং ব্রিটেন এর রানী এলিজাবেথ হতে “বিশ্ব মানবতাবাদী সংগগঠক” এর সম্মাননা পুরুষ্কার সহ অসংখ্য পুরস্কার লাভ করেন। মি. আলী জুকান, মরিশাসে নিযুক্ত মান্যবর বাংলাদেশ হাই কমিশনার জনাবা রেজিনা আহমেদ এর মাধ্যমে আমন্ত্রিত রাষ্ট্রীয়ভাবে মরিশাসের প্রতিনিধিত্ব করেন।

বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় নেতৃত্ব দেবে বাংলাদেশ, এমন অভিপ্রায় সামনে রেখে বিদেশি অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে সম্মেলনের স্লোগান নির্ধারণ করা হয়েছে- ‘শান্তি ও সম্প্রীতির দেশে স্বাগতম’। বাংলাদেশ যে বিশ্বব্যাপী শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করে যাচ্ছে, এই সম্মেলনে সেই বার্তা সবার কাছে পৌঁছাতে চায় ঢাকা।

উক্ত সম্মেলনে শান্তি রক্ষায় কাজ করা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কবি, সাহিত্যিক, নোবেল বিজয়ী, শিক্ষাবিদ, বিজ্ঞানী, শিল্পী, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, রাজনীতিক, মানবাধিকারকর্মী ও বুদ্ধিজীবীরা অংশ নিয়েছেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন, জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান-কি মুন, মিশরের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও আরব লীগের সাবেক মহাসচিব আমর মুসা, পূর্ব-তিমুরের সাবেক প্রেসিডেন্ট নোবেলবিজয়ী হোসে রামোস হোর্তা ও মালয়েশিয়ার সাবেকমন্ত্রী সৈয়দ হামিদ আলবার।

অপরদিকে সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী গর্ডন ব্রাউন, সিঙ্গাপুরের সাবেক প্রধানমন্ত্রী গোহ চোক টং ও ইউনেস্কোর সাবেক মহাপরিচালক ইরিনা বোকোভা যুক্ত ছিলেন সমাপনী অনুষ্ঠানে।

রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আজ (শনিবার) বেলা আড়াইটায় দুদিনব্যাপী এই সম্মেলন উদ্বোধন করেন, মাননীয় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। ‘অ্যাডভান্সিং পিস থ্রু সোশ্যাল ইনক্লুশন’ প্রতিপাদ্য নিয়ে এ সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তিনি। রোববার সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদান করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এবারের সম্মেলন সশরীরে ও ভার্চুয়াল- দুই মাধ্যমের অধিবেশনই ছিল। সম্মেলনে ‘ঢাকা শান্তি ঘোষণা’ প্রস্তাব আকারে পেশ হলে তা সর্বসম্মতি ক্রমেই গৃহীত হয়।


More News Of This Category
Theme Created By Tarunkantho.Com