Logo




চট্টগ্রাম টেস্ট: শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচ ড্র

তরুণকণ্ঠ :
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৯ মে, ২০২২
বাংলাদেশকে জয়ের স্বপ্ন

চট্টগ্রামের টেস্টে পঞ্চম দিনের শুরুতে বল হাতে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে বাংলাদেশকে জয়ের স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন টাইগার স্পিনার তাইজুল ইসলাম। কিন্তু দিকভেলা-চান্দিমালের প্রতিরোধে সেই স্বপ্ন ধূলিস্বাৎ হয়ে যায়। অবশেষে দুদলের সমর্থনে ম্যাচটি ড্র বলে ঘোষণা করা হয়।

বাংলাদেশ থেকে ৬৮ রানে পিছিয়ে থাকা শ্রীলঙ্কা চতুর্থ দিনের শেষ বিকেলটা ভালো কাটেনি। মাত্র ৩৯ রান তুলতেই হারায় দুটি উইকেট। অবশ্য সেটা কোনো চাপ মনে হয়নি লঙ্কানদের। কেননা পঞ্চম দিনের শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। ব্যাট হাতে বাংলাদেশের বোলারদের রীতিমতো শাসন করতে থাকেন কুশল মেন্ডিস ও অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে।

ব্যক্তিগত অর্ধশতকের পথেই হাঁটছিলেন মেন্ডিস। কিন্তু তাকে অর্ধশতক পূরণের সুযোগ দেননি টাইগার স্পিনার তাইজুল ইসলাম। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে ডানহাতি এই লঙ্কান ব্যাটার বোল্ড করে সাজঘরে ফেরান তাইজুল। আউট হওয়ার আগে ৪৩ বলে ৪৮ রান করেন মেন্ডিস। ব্যাট হাতে শূন্যরানে আউট হন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। এবারও ঘাতক সেই তাইজুল।

এরপর ধনঞ্জয়া ডি সিলভাকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন দলনেতা দিমুথ করুনারত্নে। কিন্তু তাইজুলের বোলিং তোপে বেশিক্ষণ ক্রিজে অবস্থান করতে পারেননি দুজনের কেউই। ব্যক্তিগত অর্ধশতক পূর্ণ করার পর তাইজুলের বলে ৫২ রানে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন দিমুথ।

এরপর ধনঞ্জয়া ডি সিলভা সাজঘরে ফেরেন ৩৩ রানে। সাকিব আল হাসানের করা বলে মুশফিকুর রহিমের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি।

ম্যাচের এমতাবস্থায় মনে হচ্ছিল দ্রুতই লঙ্কানদের অলআউট করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল। কিন্তু পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়ান অভিজ্ঞ ব্যাটার দিনেশ চান্দিমাল ও নিরোশান দিকভেলা। এ সময় দুজন মিলে গড়েন ৯৯ রানের প্রতিরোধ্য জুটি। ব্যক্তিগত অর্ধশতক পূর্ণ করার পর ৯৬ বলে ৬ চারের মারে ৬২ রানে অপরাজিত থাকেন দিকভেলা। আর ১৩৫ বলে ৩৯ রান করে অপরাজিত থাকেন চান্দিমাল।

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ চারটি উইকেট নেন বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। এছাড়া একটি উইকেটের দেখা পেয়েছেন সাকিব আল হাসান।

এর আগের ম্যাচের শুরুতে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে সবকটি উইকেট হারিয়ে ৩৯৭ রান করে সফররত শ্রীলঙ্কা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ১৯৯ রানের ইনিংস খেলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। জবাবে খেলতে নেমে ৯ উইকেটে ৪৬৫ রানে ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। তামিম ইকবাল খান ১৩৩ এবং মুশফিকুর রহিম ১০৫ রান করেন।


আরো পড়ুন




Theme Created By Tarunkantho.Com