রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৪২ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
অনলাইন নিউজ পোর্টাল “আজকের তরুণকণ্ঠে” জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পর্যায়ে সাংবাদিক/প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা  ইমেইলে (newstarunkantho@gmail.com)জীবন বৃত্তান্তসহ পাসপোর্ট সাইজের ছবি ও জাতীয় পরিচয় পত্র সংযুক্ত করে পাঠাতে পারেন।

বান্দরবান রুমায় কুকি-চিন কতৃক সোনালী ব্যাংক ডাকাতি

তরুণকণ্ঠ ডেস্ক
প্রকাশ : বুধবার, ৩ এপ্রিল, ২০২৪, ৯:১১ অপরাহ্ন
সোনালী ব্যাংক ডাকাতি

আবুবকর ছিদ্দীক, বান্দরবান:

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় অস্ত্রের মুখে সোনালী ব্যাংক ডাকাতি করে নগদ দুই কোটি টাকা ও নিরাপত্তা রক্ষি পুলিশ ও আনসার সদস্যের ১০ টি অস্ত্র লুট করে নিয়ে গেছে বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট ( কেএন এফ) এর সদস্যরা। মঙ্গলবার (২ই এপ্রিল) রাত ৮.৪৫ এর দিকে এ ঘটনা ঘটে।

রুমা বাজারের প্রত্যক্ষদর্শী ব্যবসায়ীরা জানান, রুমা বাজার জামে মসজিদে তারাবি নামাজ চলাকালীন সময়ে কেএনএফ এর শতাধিক সশস্ত্র সদস্য মসজিদ এবং বাজার ঘেরাও করে।

এসময় কেএন এফ সদস্যরা নামাজ চলাকালীন সময়ে মসজিদের ভিতর থেকে সোনালী ব্যাংকের ম্যানাজার নিজাম উদ্দিনকে ধরে ব্যাংকে নিয়ে যায়।

এসময় কেএনএফ সদস্যরা ব্যাংকের ভোল্ট ভাংচুর চালিয়ে দুই কোটি টাকা,ম্যানেজার নিজাম উদ্দিন এবং ব্যাংকের নিরাপত্তা দায়িত্ব থাকা ৬ পুলিশ সদস্য ও ৪ আনসার সদস্যসহ ১০ টি আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে যায়।

এদিকে এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে। বর্তমানে এ ঘটনায় রুমা উপজেলা সদরে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। রুমা উপজেলা সহকারী ভুমি-কমিশনার দিদারুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

রুমা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শৈবং মার্মা জানান,আজ দুপুরে বান্দরবান সোনালী ব্যাংক প্রধান কার্যালয় থেকে রুমা সোনালী ব্যাংকে বিপুল পরিমাণ টাকা পাঠানো হয়েছে। কেএনএফ সদস্যরা এ তথ্য পেয়ে ব্যাংক ডাকাতির ঘটনা ঘটিয়েছে।

ঘটনার সময় ব্যাংকের নিরাপত্তা দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলো ৬ পুলিশ ও ৪ আনসার সদস্যসহ ১০ জন। কেএনএফ সদস্যরা ব্যাংক ডাকাতি করতে গিয়ে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের মাথায় ও বুকে অস্ত্র ঠেকিয়ে নিরস্ত্র করে।

ব্যাংক ডাকাতি শেষে কেএনএফ সদস্যরা পুলিশ ও আনসারের ১০ টি অস্ত্র লুট করে নিয়ে যায়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ব্যাংক ম্যানেজার নিজাম উদ্দিনের কোন খবর পাওয়া যায়নি।


এ সম্পর্কিত

Theme Created By ThemesDealer.Com