রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ১০:৪৬ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
অনলাইন নিউজ পোর্টাল “আজকের তরুণকণ্ঠে” জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পর্যায়ে সাংবাদিক/প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা  ইমেইলে (newstarunkantho@gmail.com) জীবন বৃত্তান্তসহ পাসপোর্ট সাইজের ছবি ও জাতীয় পরিচয় পত্র সংযুক্ত করে পাঠাতে পারেন।

কালীগঞ্জে খামারিকে হাত-পা বেঁধে ফার্মে ডাকাতি

তরুণকণ্ঠ ডেস্ক
প্রকাশ : রবিবার, ৭ এপ্রিল, ২০২৪, ১০:০০ অপরাহ্ন

মারুফ হাসান, স্টাফ রিপোর্টার:

গাজীপুরের কালীগঞ্জে গরুর খামারিকে জঙ্গলে নিয়ে হাত-পা বেধেঁ ফেলে রেখে ডাকাতির করে গরু নিয়ে যাওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় নতুন করে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে উপজেলার উত্তর অঞ্চলের পাঁচটি ইউনিয়নের খামারীদের মধ্যে।

ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শনিবার মধ্যরাতে উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের হরিদেবপুর গ্রামের মহসিন মোড়লের বাড়িতে। খামার মালিক মহসিন মোড়ল জানায়,শনিবার দিবাগত রাতে তারাবির নামাজ পড়ে গোয়াল ঘরের পাশে ঘুমিয়ে ছিলাম। হঠাৎ করে ১০-১২ জন ডাকাত গোয়াল ঘরে ঢুকে আমার ও সাথে থাকা আমানউল্লা (টুকু)’র হাত,পা রশি দিয়ে বেঁধে ফেলে এবং গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে নিরব জঙ্গলে নিয়ে যায়। নিরব স্থানে নেওয়ার সময় আমার ও আমানউল্লা’র সাথে ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে ডাকাতরা ধারালো ছুড়ি দিয়ে আঘাত করে, আমি তা প্রতিহত করতে গেলে আমার ডান হাতের তালু কেটে রক্ত পড়তে থাকে। তারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথারী মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করে।

পরে আমাদের নিরব স্থানে ফেলে দিয়ে ডাকাতরা আমার ৫ টি গাভী ও আমার ব্যবহৃত ২টি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। যার আনুমানিক মূল্য ১০ লক্ষ টাকা। আমার সকল পুজি এই গরুর খামারে বিনিয়োগ করেছি। এখন আমি পথের বিখারী হয়ে গেছি। খামারীর বাবা হাবিবুর রহমান বলেন, শনিবার রাত ২ টার দিকে ডাকচিৎকার শুনে দ্রুত ফার্মের দিকে যাই। গিয়ে দেখি ফার্মে গরু নেই এবং আমার ফার্মে থাকা আমার ছেলেও নেই। পরে আশ-পাশের অনেক খোজাখুজি করে জঙ্গলের পাশে হাত, পা বাঁধা অবস্থা উদ্ধার করি।

একাধিক ভুক্তভোগী খামারী বলেন- বর্তমান সময়ে গরু লালন-পালন করা অনেক কষ্টের ব্যাপার। সারাদিন কাজ করে রাত জেগে গরু পাহাড়া দিতে হয়। পুলিশের নিয়মিত টহল না থাকায় প্রতিনিয়ত ঘটছে একের পর এক চুরির ঘটনা। আমরা অনেকই বিভিন্ন ব্যাংক ও এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে গরুর খামার করেছি। গরুর দুধ ও গরু বিক্রি করে সাবলম্বী হওয়ার আশায়। এখন আমরা নিঃস্ব হয়ে ঋণের বোঝায় দিশেহারা। তাই আইন শৃঙ্খলার সু-দৃষ্টি কামনা করছি।

এ ঘটনায় কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহতাব উদ্দিন বলেন, আমরা অভিযোগটি হাতে পেয়েছি। সম্প্রতি লক্ষ্য করছি গরু চোরের ঘটনা অত্যাধিক বেড়ে গেছে। আমাদের অভিযান ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে আশা করছি খুব দ্রুতই এই চক্র থেকে আমরা ধরে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে পারবো।


এ সম্পর্কিত

Theme Created By ThemesDealer.Com