শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০২:১৩ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
অনলাইন নিউজ পোর্টাল “আজকের তরুণকণ্ঠে” জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পর্যায়ে সাংবাদিক/প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা  ইমেইলে (newstarunkantho@gmail.com)জীবন বৃত্তান্তসহ পাসপোর্ট সাইজের ছবি ও জাতীয় পরিচয় পত্র সংযুক্ত করে পাঠাতে পারেন।

নাগরিক পরিষদকে বান্দরবান থেকে বিতারিত করবে জেলা আওয়ামীলীগ

তরুণকণ্ঠ ডেস্ক
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ৫:৩৩ অপরাহ্ন
নাগরিক পরিষদকে বান্দরবান

আবুবকর ছিদ্দীক, বান্দরবান প্রতিনিধি :

আওয়ামিলীগ সম্পর্কের কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যে,মিথ্যাচার বানোয়াট মন্তব্যে করে পার্বত্য এলাকায় সম্প্রীতি বান্দরবানকে বিনষ্ট করতে পায়তারা করছেন নাগরিক পরিষদ নেতা মজিবর রহমান । ১৯৭১ সালে সেই আ. লীগ এখন আর নেই, বর্তমান আ.লীগ এখন বিশাল মহাসাগরের দ্বীপ। ঘরের ভিতরে বসে ভাষণ না দিয়ে মাঠে ময়দানে সরাসরি আসেন মুখোমুখি লড়াই হবে। আপনার এই অশালীন, অযৌক্তিক বক্তব্যের দাঁত ভাঙ্গা জবাব দিতে গেলে কোথায় ছিটকে যাবেন সেটি টের পাবেন না। তাই সম্প্রীতি বান্দরবানে শৃঙ্খলা বজায় রাখতে নাগরিক পরিষদকে বিতারিত করার হুশিয়ারী দেন।

শুক্রবার (২৪ মে) সকালে বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চে প্রতিবাদ বিক্ষোভ ও সমাবেশে এক বক্তব্যে হুশিয়ারি দেন আওয়ালীলীগের নেতাকর্মীরা।

এর আগে রাজার মাঠ প্রাঙ্গন বের করা হয় প্রতিবাদ বিক্ষোভ ও সমাবেশে মিছিল। শহরে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চে এসে শেষ হয়। এসময় অংশ নেন জেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, সেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগসহ অনান্য সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, আওয়ামীলীগকে নিয়ে যে খেলা খেলতে চেয়েছেন সে খেলায় টিকতে পারবেন নাহ। আ.লীগ নেতাদের নিয়ে যদি আর কোন কটুক্তি শুরু করেন পরবর্তীতে কঠোর কর্মসূচি মাধ্যমে আপনাকে বান্দরবান থেকে বিতারিত করা হবে।

আ.লীগ নেতারা বলেন, নিজেকে নেতা নেতা ভাব ও কুচক্রী নেওয়ার কারণে তিনি জেলা আ.লীগ থেকে বহিস্কৃত। আজ তিনি তিন পার্বত্য জেলা মিলে একটি সংগঠন তৈরী করে নিজেকে চেয়ারম্যান হয়ে বাঙ্গলীদের ভাই বলে রতন সেজেছেন। কোন কিছু করতে না পেরে জেলা আ.লীগের নেতাদের নিয়ে কটুক্তি মন্তব্য করে যাচ্ছে। উপজেলা, সাংসদ নির্বাচন নিয়ে ভোট কারচুপি করাসহ জেলা পরিষদ চাকরি নিয়োগ ক্ষেত্রেও বৈষম্যতা সৃষ্টি করেছন। তার মিথ্যা বানোয়াট, কুচক্র ও অশ্লীল বক্তব্যের মাধ্যমে সম্প্রীতি বান্দরবানকে দাউ দাউ করে নষ্ট করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

জেলা আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাশ বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের সভাপতি কাজী মো. মুজিবর রহমানের চরিত্র জাতীয় বেঈমান নামে খন্দকার মোস্তাকের মতন। রাজনৈতিক ঠাই পেতে অনেক নেতার পায়ের তলে আশ্রয় নিয়েছিল কিন্তু সেসব নেতাদের সাথে বেঈমান করেছেন। সবশেষে বীর বাহাদুর কাছে আশ্রয় নিলেও তার বেঈমান ও বিভিন্ন কু-আচরণের জন্য দল থেকে বহিস্কার হয়েছে। তাই পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মো.মজিবর রহমানের মিথ্যা বিভিন্ন বক্তব্যের প্রতিবাদে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে বান্দরবানের ৭ উপজেলায় বিক্ষোভ ও সমাবেশ ও আওয়ামীলীগের সভানেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎ করে পার্বত্য এলাকার বাস্তব চিত্র উপস্থাপন করে কঠোর কর্মসূচী ঘোষনা দেন তিনি।

সমাবেশে আওয়ামীলীগ, পৌর আওয়ামী লীগ, সেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


এ সম্পর্কিত

Theme Created By ThemesDealer.Com