ajkertarunkantho
বৃহস্পতিবার , ১১ মে ২০২৩ | ২০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ-দুর্নীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ইসলাম ও জীবন
  5. কৃষি সমাচার
  6. খেলাধুলা
  7. জনদুর্ভোগ
  8. জাতীয়
  9. ধর্ম ও সংস্কৃতি
  10. প্রবাস সমাচার
  11. বাণিজ্য
  12. বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
  13. বিনোদন
  14. বিশেষ প্রতিবেদন
  15. রাজনীতি

বদলগাছী বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরীর বিরুদ্ধে ফ্যান চুরির অভিযোগ

প্রতিবেদক
নিউজ রুম
মে ১১, ২০২৩ ৩:৩৪ অপরাহ্ণ
ফ্যান চুরির অভিযোগ

মো. ফারুক হোসেন, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি:

নওগাঁর বদলগাছী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম নৈশ্য প্রহরী আরমান হোসেন রুবেলের বিরুদ্ধে স্কুলের ২৩ ফ্যান ও ঘন্টা চুরির অভিযোগ দায়ের করেছে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আমিরুল ইসলাম। ঐ একই ব্যক্তি দ্বারা বারবার ঐ স্কুলের মালামাল চুরি সংঘটিত হলেও রহস্যজনক ভাবে চুরির বিষয়টিকে ধামাচাপা দেন একটি প্রভাবশালী মহল। প্রাথমিক শিক্ষা অফিসটির ভুমিকা থাকে রহস্য জনক।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, রোজা ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে ৬ এপ্রিল থেকে ২৬শে এপ্রিল পর্যন্ত দেশের সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ছুটি ছিল। ২৭শে এপ্রিল বিদ্যালয় খোলার সরকারি নির্দেশনা থাকায় বিদ্যালয়ের সার্বিক পরিস্থিতি দেখতে কর্তৃপক্ষ ২৫শে এপ্রিল বিদ্যালয় গিয়ে দেখতে পায়। প্রতিটি শ্রেণী কক্ষে ১টি করে ফ্যান আর বাঁকী ২৩টি সিলিং ফ্যান গুলো নেই। ফ্যান চুরির বিষয়ে প্রধান শিক্ষক নৈশ্য প্রহরীর সাথে কথা বললে কোন সদুত্তর পাওয়া যায় নি। গত ২৭ এপ্রিল নৈশ্য প্রহরী বিদ্যালয় খুলে দিয়ে চলে যায় পরে গত ৩ মে বুধবার একবার বিদ্যালয়ে আসে তারপর আর আসেনি।

বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আরও জানান, সাথে সাথে বিষয়টি বিদ্যালয়ের সভাপতি, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে জানানো হয়।

বিদ্যালয় শুরু হলে শিক্ষা অফিসারের সাথে আলোচনা করে গত ৩০শে এপ্রিল রবিবার বিদ্যালয়ের ২৩টি ফ্যান চুরির ঘটনায় স্কুলের নৈশ্য প্রহরী আরমান হোসেন রুবেল বিরুদ্ধে বদলগাছী থানায় একটি অভিযোগ করেন প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার।

স্থানীয়রা জানান, ইতি পূর্বে এই বিদ্যালয়ের নৈশ্য প্রহরী দ্বারা পরপর ৪/৫বার চুরি হয়েছে। প্রভাবশালী মহলের তদবিরে ঘটনা বারবার ধামাচাপা দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয়রা আরও জানান, আরমান হোসেন রুবেল একজন মাদকসেবী। রাজনৈতিক ক্ষমতা বলে তাকে বিদ্যালয়ে চাকুরী দেওয়া হয়েছে। ইতি পূর্বে তাকে মাদকসহ থানা পুলিশ আটকও করেছে। বারবার অপরাধ করার পরও তার কোন ব্যাবস্থা গ্রহণ করেনা কর্তৃপক্ষ। নৈশ্য প্রহরীর পরিবার রাজনৈতিক ক্ষমতা দেখিয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, সভাপতি সহ উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে ম্যানেজ করে বহাল তবিয়তে চাকুরী করে যাচ্ছে আরমান হোসেন রুবেল। আর মাদকের টাকা জোগাড় করার জন্যই বারবার বিদ্যালয় থেকে বিভিন্ন জিনিস পত্র চুরি করে সে । আর তার পরিবার থেকে বিভিন্ন ভাবে বিষয়টি ম্যানেজ করে ও ধামাচাপা দেয়।

বিষয়ে বদলগাছী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আমিরুল ইসলাম বলেন, বদলগাছী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, নৈশ্য প্রহরীকে বরখাস্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে বলা হয়েছে। ওসি সাহেবকেও বলেছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য। বদলগাছী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী আরমান হোসেনের এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। মোবাইল না থাকায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

বদলগাছী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, এ ব্যপারে থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে। চুরির ঘটনায় আরমান হোসেন রুবেলকে শোকজ করা হয়ছে। গত ২৭তারিখ থেকে সে আর বিদ্যালয়ে আসেনি। পোস্ট অফিসের মাধ্যেমে শোকজের কাগজ পাঠানো হয়েছে।

চুরির ব্যাপারে বদলগাছী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি আব্দুল রাজ্জাক বলেন, আপনারা হয়তো শুনেছেন এর আগেও সে এই রকম কর্যক্রম করেছে। আবারো সে চুরি করেছে। তাকে সাময়ীক বরখাস্ত করা হয়েছে। প্রশাসনিক ভাবে এগানো হচ্ছে।

বদলগাছী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আতিয়ার রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিদ্যালয়ে চুরির ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইতি পূর্বে নেশা করার দায়ে ঐ নৈশ্য প্রহরী আরমান হোসেন রুবেলকে এর আগেও কয়েকবার আটক করা হয়েছিলো।

বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আলপনা ইয়াসমিন প্রথমে বিষয়টি এরিয়ে গিয়ে পরে সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজানুর রহমান চৌধুরী আমাকে চুরির ব্যাপারে অবগত করেছেন। প্রধান শিক্ষক এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছেন।

সর্বশেষ - সারাদেশ